কত কোটি টাকা দুর্নীতি করলে বিচার করা যাবে প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর আপডেট: 14-02-2018   
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজা নিয়ে সমালোচনার জবাবে কত কোটি টাকা দুর্নীতি করলে বিচার করা যাবে এমন প্রশ্ন রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতালির রোমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্যোগে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ প্রশ্ন রাখেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, টাকাগুলো বিদেশ থেকে এসেছিলো এতিমদের জন্য, সে টাকা এতিমদের কাছে যায়নি, তাদের ব্যক্তিগত তহবিলে চলে গিয়েছিলো। টাকাগুলো কোন এতিমের কাছে গেছে? হ্যাঁ যদি খালেদা জিয়া বলতেন আমার দুই ছেলে এতিম তাদের জন্য রেখেছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার প্রশ্ন আজকে যারা বিএনপি দরদি, আমাদের আঁতেলরাও আছে তারা বলে দুই কোটি টাকার জন্য কেন এত মামলা। তাহলে দুর্নীতির করার জন্য একটা সিলিং থাকবে যে এত কোটি পর্যন্ত দুর্নীতি করা জায়েজ। তারা কি সেটা বলতে চায়। শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি তাহলে একটা দাবি করুক যে এত কোটি পর্যন্ত তারা দুর্নীতি করতে পারবে। দেখি সেটা দিয়ে একটা রিট করুক। বিশেষ কেউ দুর্নীতি করলে তা কি অপরাধ নয়? প্রশ্ন করেন তিনি। তিনি বলেন, সেনাবাহিনীর নয়জন জেনারেলকে ডিঙিয়ে জেনারেল মঈনকে সেনাপ্রধান করেছিলো। বিশ্বব্যাংকে চাকরি করতেন ফখরুদ্দিন সাহেব তাকে নিয়ে এসে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর করেছিলো। তাদের দলীয় লোক ইয়াজ উদ্দিন সাহেবকে বানালো রাষ্ট্রপতি। ফখরুদ্দিন, মঈন উদ্দিন, ইয়াজ উদ্দিন তারাইতো তার বিরুদ্ধে মামলা দিলো। মামলাতো আওয়ামী লীগ দেয়নি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস যারা করবে, জঙ্গিবাদের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিচার হতেই হবে। কারণ বাংলাদেশটাকে আমরা একটা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে আনতে চাই। বাংলাদেশের উন্নয়ন চাই। প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার আমলে বাংলাদেশ পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়। খালেদা জিয়া একজন প্রধানমন্ত্রী হয়েও কালো টাকা সাদা করেছেন। এ টাকা কোথা থেকে এলো। বিএনপি ক্ষমতায় থেকে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হত্যা, নির্যাতন, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি, ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে হত্যা চেষ্টা করেছে বলেও অভিযোগ করেন শেখ হাসিনা।