এবার চশমায় চলবে ফেসবুক! আপডেট: 28-08-2017   
ফেসবুক চালানোর জন্য আর মোবাইল বা কম্পিউটারের প্রয়োজন হবে না, বরং আপনার চোখের সামনেই আপনি দেখতে পাচ্ছেন ফেসবুক, করতে পারছেন অডিও ও ভিডিও আলাপ। কী, কল্পবিজ্ঞান মনে হচ্ছে? না, কল্পবিজ্ঞান নয়, সত্যিই এমন প্রযুক্তি নিয়েই কাজ শুরু করেছে ফেসবুক। ইংরেজিতে এই প্রযুক্তিকে বলা হয় ‘অগমেন্টেড রিয়েলিটি’ সংক্ষেপে ‘এআর’। এই প্রযুক্তির ওপর ভিত্তি করেই ফেসবুক তৈরি করছে ‘এআর চশমা’। ফলে ফেসবুক চালানোর জন্য আর কোনো আলাদা যন্ত্রের প্রয়োজন নেই। ম্যাশেবলের খবরে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার এ-সংক্রান্ত একটি পেটেন্ট দাখিল করেছে ফেসবুক। পেটেন্টে লেখা ছিল, কম্পিউটারের বিভিন্ন উপাদান দ্বারা অগমেন্টেড দৃশ্য ব্যবহারকারীদের সামনে তৈরি হয়। কিন্তু এবার কম্পিউটারের পরিবর্তে এটি তৈরি হবে চশমার গ্লাসে এবং ব্যবহারকারীরা কম্পিউটারের মতো চশমায় ফেসবুক চালাতে পারবেন। বিশেষ ওই চশমায় ব্যবহার করা হবে দ্বিমাত্রিক স্ক্যানার। ফেসবুকের জন্য এই্ স্ক্যানার তৈরি করবে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি প্রতিষ্ঠান অকুলাস ভিআর। দ্বিমাত্রিক স্ক্যানার ব্যবহারের ফলে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি, অগমেন্টেড রিয়েলিটি, মিক্সড রিয়েলিটিকে আলাদাভাবে অথবা একসঙ্গে ব্যবহার করা যাবে। চশমাটিতে আরো ব্যবহার করা হবে লেজার রশ্মি, স্ক্যানিং আয়না এবং অন্যান্য যন্ত্রপাতি, যার মাধ্যমে ছবি এবং ভিডিও চালু করা যাবে। এ ছাড়া চশমার লেন্সে আলোর জোগান দেওয়ার দায়িত্ব থাকছে লেজার রশ্মির কাঁধে, যা পরিণত হবে ছবি ও ভিডিওতে। চশমাটি পরলেই ছবি বা ভিডিও দেখতে পাবেন ব্যবহারকারীরা। চশমাতে শব্দ শোনা ও বলার জন্য থাকছে সহায়ক স্পিকার ও হেডফোনের ব্যবস্থা। ফেসবুকের পক্ষে চশমাটির পেটেন্টের জন্য যাঁরা আবেদন করেছেন, তাঁদের মধ্যে একটি নাম বেশ সুপরিচিত। পাসি সারিক্কো, যিনি এর আগে মাইক্রোসফটের প্রকৌশলী ছিলেন এবং সফলভাবে হলোলেন্স প্রযুক্তির নকশা করেছিলেন। তাই তার অভিজ্ঞতার ওপর ভর করে ভবিষ্যতে অগমেন্টেড রিয়েলিটি চশমায় ফেসবুক চালানো নিয়ে আশায় বুক বাঁধছেন ব্যবহারকারীরা।