ভারতে গো-মাংস বিধিতে পরিবর্তন আসছে? আপডেট: 27-08-2017   
নাগরিকদের ব্যক্তি পরিসরের অধিকারকে ‘মৌলিক অধিকার’ বলে রায় দিয়েছেন ভারতের শীর্ষ আদালত। আর এ রায়ের প্রভাব গরুর মাংসের বিধিনিষেধ সংক্রান্ত মামলার উপরও পড়বে বলে জানিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। ফলে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার পরিবর্তন আসতে পারে গোমাংস বিধিতে। সুপ্রিম কোর্ট রায়ে বলেন, ‘নিত্য নতুন মামলায় আরও বিস্তৃত হচ্ছে ব্যক্তি পরিসরের ক্ষেত্র। পশুহত্যা এবং খাদ্য নিয়ে নাগরিকদের ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দের কথাও তাই নতুন করে ভাবতে হচ্ছে। কে কী খাবে, পরবে -মনে হয় না রাষ্ট্র তা নিয়ে কিছু বলতে পারে।’ এর আগে গত বছর মে মাসে ‘মহারাষ্ট্র অ্যানিম্যালস প্রিজারভেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) অ্যাক্ট, ১৯৯৫’-এর ৫(ডি) ও ৯(বি) ধারাকে ‘অসাংবিধানিক’ বলে বাতিল করে দেন বম্বে হাইকোর্ট। আদালত বলেন, রাজ্যের বাইরে জবাই হওয়া মোষ বা গরুর মাংস মহারাষ্ট্রে কারও কাছে পাওয়া গেলে, তা কোনোভাবেই ফৌজদারি অপরাধ বলে গণ্য করা হবে না। সেই রায়ের বিরুদ্ধেই সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় মহারাষ্ট্র সরকার। এদিকে, দুই বছর পর সেই রায় বদলে যাওয়ায় মহারাষ্ট্র সরকার বেশ বিপাকে বলে মনে করছেন অনেকে। এ ছাড়া সরকারি নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে এই জাতীয় আরও কয়েকটি মামলার দেশটির সুপ্রিম কোর্টে শুনানি চলছে। যার সবগুলোতে ব্যক্তি পরিসরের রায় প্রভাব ফেলবে বলে জানান বিচারপতি এ কে সিকরি এবং বিচারপতি অশোক ভূষণের বেঞ্চ। উল্লেখ্য, গবাদি পশু কেনাবেচা বিধি জারি করা নিয়ে গত মে মাসে এক নির্দেশিকায় কেন্দ্রীয় সরকার জানায়, দেশের হাট-বাজারে কোনো গবাদি পশু জবাইয়ের উদ্দেশ্যে বিক্রি করা যাবে না। গবাদি পশু শুধুমাত্র চাষের কাজেই কেনাবেচা করা যাবে।